১৬৪ ধারায় লিজা হত্যাকান্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা> পিটিয়ে ও  ডুবিয়ে খুন করে বখাটে এমরান

ফেনী প্রতিনিধি..ফেনীর পরশুরামে ৫ বছরের শিশু সুমি হত্যা মামলায় আটককৃত এমরান আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। বৃহস্প্রতিবার দুপুরে আটককৃত বখাটে এমরানকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয় ।

১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বাউর পাথর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে মাদকাসক্ত এমরান পুলিশকে জানায়, লিজা আক্তার সুমিকে প লাঠি দিয়ে আঘাত করে পরে পুকুরে ডুবিয়ে নির্মম ভাবে খুন করে ।

পাশের বাড়ীর এমরান ছিল সুমির কাছে তার বাবার মত, লিজা আংকেল বলেই ডাকতো এমরানকে।  ফলে মাদকাসক্ত এমরানের হাতেই নির্মম বলি হতে হলো তাকে। ভয়ংকর গল্পের মতো বেরিয়ে এলো নির্মম বাস্তব সত্যিটা । সবাইকে রীতিমত হতবাক করে দিয়েছে ঐ পাষন্ড বখাটে এমরানের নির্মমতার লোমহর্ষক ঘটনা।

বখাটে এমরান পুলিশকে জানায়, ঘটনার দিনও মাদকাসক্ত এমরান সন্ধার পর সুমিকে দোকান থেকে খাবার কিনে দেয়। আরো খাবার কিনে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তাকে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। সুমির চিৎকার শুরু করলে তাকে মাদকাসক্ত এমরান থাকে লাঠি দিয়ে
আঘাত করে। লিজা তার বাবা কে জানিয়ে দিবে বলে সুমি চিৎকার শুরু করলে এমরান সীমান্তবর্তী ওই পুকুরে নিয়ে পানিতে নিয়ে ডুবিয়ে হত্যা করে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্প্রতিবার ১৮ জানুয়ারী সন্ধ্যায় দোকান থেকে বাড়ীতে যাবার পথে সুমি নিখোঁজ হন। তাকে খুঁজে পেতে মাইকিং হয়। পরদিন সকালে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পরশুরাম থানা পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *