১২ সেপ্টেম্বর খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান : শিক্ষামন্ত্রী

আগের ঘোষণা অনুযায়ী এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের উৎকণ্ঠার কোনো কারণ নেই। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে উপাচার্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছেন, শিক্ষার্থীরা প্রথম ডোজ টিকা নেওয়ার পর অক্টোবরের মাঝামাঝি খোলা হতে পারে। এর আগে যদি তারা বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে চান, খুলতে পারবেন।  শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রায় ১৭ মাস বন্ধ রয়েছে। আর সেটির সুফলও আমরা পেয়েছি। এ কারণে আমাদের দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়েনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ১৮ বছরের ওপরের সবাই টিকা পাবে বলে আগে সিন্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু এখন ১২ বছরের ওপরের শিশুদের টিকা দেওয়া হবে। আমরা পর্যায়ক্রমে সবার কাছে টিকা পৌঁছে দেবো। আমরা আশাবাদী, আগামী ১২ সেপ্টেম্বর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে পারব। 

সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। শুধুমাত্র একা শিক্ষামন্ত্রণালয় এটি নিশ্চিত করতে পারবে না। সেক্ষেত্রে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদসহ সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. জেআর ওয়াদুদ টিপু, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলাহ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *