অবশেষে সেই ধর্ষক হলো স্বামী !

ফেনী প্রতিনিধি, ১৭ এপ্রিল ২০১৮
গৃহবধুকে জোরপূর্বক তুলে এনে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত ইমরান হোসেন রিপুর সাথে অবশেষে ধর্ষিতার বিয়ে ফেনীর আদালতের এজলাসে সম্পন্ন হয়েছে । সোমবার বিকালে উভয়ের সম্মতিক্রমে বিয়ে পড়ানো হয়। ইমরান হোসেন রিপু ফেনী সদর উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক স¤পাদক ছিলেন । ধর্ষণের অভিযোগে তাকে সম্প্রতি অব্যাহতি দেয়া হয় ।

আদালত সূত্র জানায়, জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আসাদুজ্জামান উভয়ের সম্মতিক্রমে বিয়ে পড়ানোর আদেশ দেন। এর কিছুক্ষণ পর এজলাসে তাদের বিয়ে পড়ানো হয়। ৭ লাখ টাকা দেনমোহরে নিকাহ রেজিষ্ট্রি করেন স্থানীয় ১২নং ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিষ্ট্রার হুমায়ুন কবীর।
এসময় উভয়পরে পরিবারের সদস্যগণ ছাড়াও বাদী পরে আইনজীবী জাহিদ হোসেন খসরু, বিবাদী পরে আইনজীবী ফাহিম নুরসহ আইনজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তীতে আদালত রিপুকে এক মাসের জন্য জামিন দেয়।

উল্লেখ্য, ফেনী শহরের নাজির রোড এলাকার একটি বাসায় তুলে নিয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ৯ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ করে রিপু । এ ঘটনায় রিপুর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন ওই গৃহবধূ ।

গত ১৩ মার্চ ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হলে আদালত রিপু ও তার সহযোগি তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। ২৩ মার্চ শহরের মহিপাল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনার পর তাকে ছাত্রলীগের স্বীয় দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

গত তিন বছর পূর্বে অপ্রাপ্ত ধর্ষিতা বিয়ে দেয়া হয়েছিল এক প্রবাসীর কাছে । পাত্রীর বয়স কম হওয়ায় সে বিয়েতে কাবিন হয়নি। পারিবারিক সম্মতিতে গৃহবধূ থাকতেন বাবার বাড়িতে । ওই গৃহবধূ সম্পর্কে ধর্ষক রিপুর চাচাতো বোন হন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *