সড়কে পানির গর্ত শুক্রবার ফেনীতে ৪০ কিলোমিটার যানজট

সৌরভ পাটোয়ারী, ফেনী ১১ মে ২০১৮
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যানজটের নতুন দূর্ভোগের নাম ফেনী। এখানে ৪শত গজ সড়কের জন্য লাগাতার যানজট লেগে থাকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার। খাঁচায় বন্দি পাখির মত যাত্রবাহী মানুষগুলোর অসহায়ত্বের চিত্র যেন থামছে না। যে সড়কটি পার হতে সময় লাগতো ৫ মিনিট সেটি এখন পার হতে সময় লাগে ৪-৫ ঘন্টা।

চার লেনের মহাসড়কটি ফেনীর ফতেহপুর রেলওয়ের ওভারপাস নির্মাণের কারণে পরিণত হয়ে যায় এক লেনে। ওভারপাস নির্মাণ না করায় এই এলাকায় দুই পাশে প্রায় ৪০ কিলোমিটার পথে সার্বণিক যানজট সৃষ্টি হচ্ছে।
যানজটের কারণে ফেনী-কুমিল্লা আন্তঃজেলা রুটে দুটি পরিবহন সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছেন পরিবহন মালিকরা। ফেনীর যাত্রীরা নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি হয়ে ঢাকায় যাতায়াত করেন । এজন্য সময় লাগে হয় ৩ গুণ বেশি । যাত্রীবাহী বাস ও মালবাহী যান চলাচলের কারণে এখন ফেনী শহরের বিভিন্ন প্রবেশ পথ নিয়মিত যানজটের কবলে পড়েছে স্থানীয় অধিবাসীরা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফতেহপুর রেল ওভারপাস এলাকায় শুক্রবার সরেজমিনে এমন দৃশ্যই দেখা গেছে। বেলা ৩ টায় ঢাকা থেকে ঢাকাগামী বাস ও ট্রাক ফতেহপুর থেকে কুমিল্লা পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটে পড়ে। দুই প্রান্তে সবসময় প্রায় ৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত যানজট লেগেই থাকে।

ফেনীর ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম নবী জানান, নিয়ম হচ্ছে ওভারপাস নির্মাণকাজ শুরুর আগেই চলাচলের জন্য অ্যাপ্রোচ রোড নির্মাণ করা। সময়মতো অ্যাপ্রোচ রোড নির্মাণ না হওয়ায় লাগাতার যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

শুক্রবার সরেজমিন দেখা যায়, অ্যাপ্রোচ রোড ও ড্রেনের কাজ করা হচ্ছে।

ফেনী-কুমিল্লা আন্তঃজেলা মদিনা ও যমুনা বাস সার্ভিস নেতারা জানান, ১ ঘন্টা সময়ের বদলে এখন অতিরিক্ত ৪-৫ ঘণ্টা লাগে গন্তব্যে পৌঁছাতে। এ অবস্থায় লোকসানের করণে সার্ভিস এখন বন্ধ ।
ফেনী-ঢাকার মধ্যে চলাচলকারী এনা পরিবহনের চালক জয়নাল জানান, তিনি ফেনীর যানজট থেকে বাঁচতে কুমিল্লার চাঁদপুর, নোখালীর সোনাইমুড়ি দিয়ে ফেনী আসতে ৩ ঘন্টা সময় লেগেছে।

সড়ক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণকাজ ২০১২ সালে শুরু হয়। নির্মাণকাজ শুরুর পর ফেনীতে চাঁদাবাজি ও ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে বারবার কাজ বন্ধ হয়ে যায়। অভিযোগ পাওয়া যায়, স্থানীয় একশ্রেণির সন্ত্রাসী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কাছে এক কোটি টাকা চাঁদা দাবিতে অফিসে বোমা হামলা, ভাংচুর ও কো¤পানির প্রকৌশলীদের অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ অবস্থায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ ছেড়ে পালিয়ে যায়। সড়ক বিভাগ একপর্যায়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কার্যাদেশ বাতিল ঘোষণা করে। দীর্ঘদিন পড়ে থাকার পর বর্তমানে সেনাবাহিনীর তত্ত¡াবধানে পুনরায় ওভারপাস সড়ক নির্মাণ শুরু হয়।

শুক্রবার বিকেলে ফেনী বিসিক এলাকায় যানজট নিয়ন্ত্রণ করার দায়িত্বে থাকা ফেনীর ট্রাফিক ইন্সপেক্টর ফারুক দৈনিক বাংদেশের খবরকে জানান, ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণকাজের শুরু থেকেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের এ স্থানে যানজটের সৃষ্টি হয়। বন্দর নগরী চট্টগ্রাম থেকে পণ্যবাহী ও ঢাকা-চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম-সিলেট, চট্টগ্রাম-চাঁদপুর রেল রুটে দিন ও রাতে শতাধিক ট্রেন চলাচল করে থাকে। আবার ওভারপাসের নির্মাণসামগ্রী পরিবহন করা হয়। এ অবস্থায় দিনরাতে
শতাধিকবার ফতেহপুর রেলগেট বন্ধ রাখতে হয়। আবার অন্যদিকে সড়কের অ্যাপ্রোচ রোড নির্মাণকাজ এখনও শেষ হয়নি। অ্যাপ্রোচ রোড়ে বৃষ্টির পানিতে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় লাগাতার যানজট চলছে।

পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম সরকার জানান, ফতেহপুর রেল ক্রসিংয়ের ওপর চাপ বেড়ে যাওয়ায় দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট নিরসনে অতিরিক্ত দুই শতাধিক পুলিশকে মহাসড়কে মোতায়েন করা হয়েছে।

ফেনী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহিদ হোসেন জানান, পুরাতন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। আগামী মে-জুন মাসের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হবে। এ সড়কে যানচলাচল শুরু হলে যানজটের পরিমাণ সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *