স্বেচ্ছায় সাঁকো নির্মাণ

নিজস্ব প্রতিনিধি

পরশুরামে টানা বৃষ্টি ও ভারতীয় পাহাড়ী বন্যায় ভেসে যাওয়া সাঁকো ও রাস্তা মেরামত করেছেন গ্রামবাসী। উপজেলার মির্জানগরের দক্ষিণ কাউতলী গ্রামে বন্যায় ক্ষতিগস্থ ৫ টি ভাঙ্গণ স্থান ও একটি সাঁকো মেরামত করছেন তাঁরা।

পরশুরামে বন্যার পানি নেমে গেছে তবে রেখে গেছে তার তান্ডব লীলার ক্ষত চিহ্ন। বন্যায় ক্ষতিগস্থ গ্রাম যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারেই বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এবারের বন্যায় পরশুরামে প্রায় ত্রিশটি স্থানে ভাঙ্গণ দেখা দেয়। এতে রাস্তাঘাট, পুলকালভাট, ফসলী জমি, মৎস চাষীদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

মির্জানগরের দক্ষিণ কাউতলী গ্রামের মুহুরী নদীর মুল বেঁড়ী বাঁধ ভেঙ্গেছে, সেটার প্রভাবে পুরাতন বেঁড়ী বাঁধ আরো ৮ জায়গা পুরোপুরি ভাবে ভেঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারে বিচ্ছিন্ন হয়েছিল এবং আরো বেশ কয়েক জায়গা ভেঙ্গেছে আংশিক। ওই এলাকার অন্তত ১৫ পরিবারের বসত ঘর ও দোকান ঘর পানির ¯্রােতে ভেসে গেছে, এখনো অনেকে বেঁড়ী বাঁধের উপর অস্থায়ী ঘর তৈরী করে বসবাস করছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কাউতলী গ্রামের মনছুর উদ্দিনের নেতৃত্বে স্থানীয়রা এসব ভাঙ্গণ স্থান মেরামত করায় যানচলাচল ও যোগাযোগে সুবিধা হয়েছে। ওই এলাকার প্রায় ৪ হাজার মানুষের যাতায়াতে স্বাভাবিক হয়েছে।

তিনি জানান সেচ্ছাশ্রমে ৪/৫ টি ভাঙ্গণ মেরামত করা হয়েছে। বেঁড়ী বাঁধ এবং কাঁচা পাকা রাস্তা গুলা দ্রুত সংস্কার করা হলে মানুষের দুর্দশা লাগব হতো। আর যাদের ঘর একেবারে ভেসে গেছে কিংবা বসবাসের অনপযোগী হয়ে গেছে তারা যদি এই বিপদের মুহুর্তে আর্থিক এবং অবকাঠামোগত সহযোগিতা পেত তাহলে তাদের উপকার হতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *