সোনাগাজীর মেছোবাঘটি চর আবদুল্লার কেওড়া বনে অবমুক্ত

নিজস্ব প্রতিনিধি :

শুস্ক মৌসুমে প্রখর রোদে নদী-নালা খাল-বিল ও সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ঝিরি-ঝর্ণার পানি শুকিয়ে যাওয়ায় বন্য প্রাণীদের পানি ও খাবার সংকট

আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে অজ্ঞাতস্থান থেকে একটি মেছোবাঘ সোনাগাজী পৌরসভার তুলাতলী এলাকায় লোকালয়ে চলে আসে। স্থানীয় লোকজন বাঘটিকে ধরতে ধাওয়া করতে থাকে। দীর্ঘক্ষণ পর পুলিশের সহায়তায় বাঘটিকে আটক করে বেধে থানায় নিয়ে আসা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, সোমবার সকালে হঠাৎ করে কোথা থেকে একটি  বিরল প্রজাতির বাঘ পৌরসভার তুলাতলী এলাকায় লোকালয়ে চলে আসে। প্রথমে ভয়ে কেউ বাঘটিকে ধরার চেষ্টা করেনি। পরে স্থানীয় লোকজন অনেকে মিলে বাঘটিকে ধাওয়া দিয়ে আটক করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় দীর্ঘ এক ঘন্টা চেষ্টার পর বাঘটিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এসময় বাঘটিকে এক নজর দেখতে উৎসুক জনতা তুলাতলী এলাকায় ভিড় জমায়।

সোনাগাজী মডেল থানার এসআই মো. সাইফুদ্দিন জানান, স্থানীয়রা বাঘটিকে ধরে মেরে ফেলতে পারে। এজন্য খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বাঘটিকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন আহমেদ বলেন, পৌরসভার তুলাতলী থেকে উদ্ধার করা মেছোবাঘটিকে বিকেলে  জেলা ও উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাঁরা বাঘটিকে সুবিধা জনক এলাকায় অবমুক্ত করবে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামের মিরসরাই এলাকায় বঙ্গবন্ধু শিল্পা অঞ্চলের কাজ শুরু করায় গত বছর থেকে উপজেলার মুহুরী প্রকল্প এলাকায় হঠাৎ বানর, হরিণ ও মেছবাঘসহ বন্য প্রানীর আনাগোনা দেখা  দিয়েছে। দিনে হঠাৎ দেখা গেলেও রাতের বেলায় আর দেখা যায় না।

উপজেলা সামাজিক বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা বাবুল চন্দ্র দাস বলেন, উদ্ধার হওয়া মেছোবাঘটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বিকেলে উপজেলার বড় ফেনী নদীর দক্ষিণাঞ্চলে চর আবদুল্লাহর কেওড়া বাগানে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *