সোনাগাজীতে ফসলী জমি রক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান কৃষকরা

ফেনী প্রতিনিধি, ০৩ ফেব্রুয়ারী
ফেনীর সোনাগাজীতে তিন ফসলী জমি রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন ভ‚মি মালিক ও কৃষিজীবীরা।

উপজেলার ৬৯ নং থাক খোয়াজের লামছি মৌজার তিন ফসলি কৃষি জমিকে অকৃষি ভ‚মি দেখিয়ে ‘সোনাগাজী সোলার পাওয়ার লিঃ’র স্বার্থে হুকুম দখল কার্যক্রম গ্রহণের প্রতিবাদ ও প্রতিকার চেয়ে ফেনী জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজামানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে স্থানীয় ভ‚মি মালিক ও কৃষিজীবীরা।

বুধবার (০৩ ফেব্রুয়ারী) সকালে ফেনী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এসে জেলা প্রশাসকের হাতে তারা এ স্মারকরিপি তুলে দেন।

স্বারকলিপিতে তারা উল্লেখ করেন, বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ের স্মারকে ওই মৌজার আনুমানিক ২’শ একর অকৃষি জমি অধিগ্রহণের জন্য ভ‚মি মন্ত্রনালয়কে এড়িয়ে সরাসরি ফেনী জেলা প্রশাসককে আদেশ প্রদান করা হয়। এ আদেশের ধারাবাহিকতায় স্থানীয় পৌর ভ‚মি অফিস ও সোনাগাজীর সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) সোনাগাজী সোলার পাওয়ার লিঃ কোম্পানীর কর্মকর্তাদের দ্বারা অবৈধভাবে বাধ্য হয়ে অকৃষি ভ‚মির স্থলে তিন ফসলী কৃষি ভ‚মিকে অধিগ্রহণের জন্য বেআইনীভাবে প্রস্তাব প্রেরণ করে।

ভ‚মি মালিক ও কৃষকরা আরো জানায় প্রকৃত পক্ষে উল্লেখিত ষোল আনা ভ‚মিই তিন ফসলি কৃষি ভ‚মি। তারা আরো জানান, এ ব্যাপারে তারা স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান, কারণ প্রধানমন্ত্রী নিজে বলেছেন কোন ফসলী জমি নষ্ট করা যাবেনা। খাদ্যে স্বয়ংসম্প‚র্ণতা অর্জন করতে হলে ফসলী জমির বিকল্প নেই।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সোনাগাজী মুহুরী সেচ প্রকল্প এলাকার থাক খোয়াজ লামছি মৌজার ১ ও ২ নং সিটের ফসলী ভ‚মি রক্ষা কমিটির আহবায়ক জসিম উদ্দিন, সদস্য সচিব মোশারফ হোসেন, সদস্য নিজাম উদ্দিন, আবু তৈয়ব ও মাহবুবুল হক।

উল্লেখ্য গত কয়েকদিন আগে ওই এলাকার কৃষি জমিগুলো পরিদর্শন করতে যান ফেনী-৩ (সোনাগাজী- দাগনভ‚ঞা) আসনের সাংসদ ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লে. জেনারেল মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী (অব.)।

এ সময় তিনি বলেছেন ফসলী জমি অধিগ্রহণ করে সৌর বিদ্যুৎ পকল্প করা ঠিক হবেনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্পষ্ট নির্দেশনা আছে ফসলী জমি নষ্ট করা যাবেনা- দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্প‚র্ণ করতে ফসলী জমির বিকল্প নেই। যে জমিতে বছরে তিন ফসল হয় এমন জমি অধিগ্রহণ করে বেসরকারীভাবে সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প করা হলে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে অমান্য করা হবে।

ক্যাপশন: জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজ্জামানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিচ্ছেন ভ‚মি মালিক ও কৃষকদের প্রতিনিধিরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *