সোনাগাজীতে ডাকাতিকালে হামলায় গুরুতর আহত ৫

 

ফেনী প্রতিনিধি: ১৬ এপ্রিল ২০১৮
ফেনীর সোনাগাজীতে একই রাতে দুই বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতের হামলায় নারীসহ পাঁচজন গুরুতর আহত হয়েছেন। রোববার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের মধ্যম চরচান্দিয়া ও ওলামাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

ডাকাতরা উভয় বাড়ি থেকে ২০ ভরি স্বর্ণালংকার, মূল্যবান জিনিসপত্রসহ প্রায় ১২ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে ।

তিগ্রস্ত পরিবার জানান, গতকাল রোববার দিবাগত রাতে উপজেলার মধ্যম চরচান্দিয়া গ্রামের রুহুল আমিনের নতুন বাড়িতে ৮/১০ জনের একদল মুখোশধারী ডাকাত দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে পরিবারের সবাইকে জিম্মি করে।

ঘরের পাঁচটি আলমারির তালা ভেঙে ৫ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ ১ লাখ টাকা এবং ২টি মোবাইল ফোন, কাপড়চোপড়সহ ৫ লাখ টাকার মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে। এ সময় পরিবারের লোকজন চিৎকার দিলে ডাকাতেরা দুলাল হোসেন (৪৭), বেলাল হোসেন (৪২), কামাল উদ্দিন (৩৭), আমেনা বেগমসহ (৩০) পাঁচজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে বেলাল ও দুলাল ঢাকা মেডিক্যাল ফেনী ও সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অন্যেরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

একই রাতে চরচান্দিয়া ইউনিয়নের ওলামাবাজার সংলগ্ন ফকির বাড়ির আবদুল মোমিন ঘরে ৮/১০ জনের মুখোশধারী একদল সশস্ত্র ডাকাত ঘরে ঢুকে পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তিনটি আলমারির তালা ভেঙে ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ ২ লাখ টাকা এবং ২টি মোবাইল ফোনসহ সাত লাখ টাকার মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে গেছে।

সোনাগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম , ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক হিরন ,মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হারৃনুর রশিদ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মিলন ঘটনাস্থল দুটি পরিদর্শন করেছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হারুনুর রশিদ বলেন, ডাকাতি হওয়া মালামাল উদ্ধারসহ ডাকাতদের গ্রেপ্তারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।
এ নিয়ে গত ১৫ দিনের ব্যবধানে সোনাগাজীতে আটটি ডাকাতির ঘটনা ঘটল। এর মধ্যে চরচান্দিয়া ইউনিয়নে দুটি ও নবাবপুর ইউনিয়নে ছয়টি ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *