সুন্দর নারীর ছবি দেখিয়ে ফাঁদে পেলে টাকা নিতো কেয়ারটেকার শাহিন

ফেনী প্রতিনিধি, ১৯ অক্টোবর

বাবু হত্যার আসামী মোজাম্মেল হক শাহীন সুন্দরী নারীর ছবি দেখিয়ে বিভিন্ন জন থেকে টাকা নিতো। প্রবাসী শিক্ষার্থী ইউনুছ বাবু ও তার বন্ধু শাহরিয়ার এমন খপ্পরে পড়লে তাদের সাথে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয় যারকারণে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। ৭ দিনের রিমান্ডে  এমন তথ্য জানিয়েছে কেয়ারটেকার শাহিন।
সোমবার(১৯ অক্টোবর) তার ৭ দিনের রিমান্ড শেষে পুনরায় ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুদ্বীপ রায়। আদালত শাহিনের আরো দুই দিনের রিমান্ড  মঞ্জুর করেন। ফেনীর সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসাইন এ রায় দেন।

এই মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী আবুল হোসেন বলেন, হত্যাকান্ডের বিষয়ে আসামী শাহীন কোনো সঠিক তথ্য দিচ্ছে না যারকারণে পুনরায় রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। তবে আসামী যা জানিয়েছে তা হচ্ছে, আসামী শাহীন সুন্দরী নারীর ছবি দেখিয়ে বিভিন্ন জন থেকে টাকা নিতো। প্রবাসী শিক্ষার্থী ইউনুছ বাবু ও তার বন্ধু শাহরিয়ার এমন খপ্পরে পড়লে তাদের সাথে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয় যারকারণে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

গত ১০ অক্টোবর রাত ১১ টার দিকে ফেনী শহরের পাঠানবাড়ি এলকার তাসফিয়া ভবনের সেফটি ট্যাংক থেকে ইউনুস বাবু (২২) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার আগেরদিন ৯ অক্টোবর ভোরে শাহরিয়ার নামে আরেক বন্ধুকে উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু শাহরিয়ার অলৌকিকভাবে বেঁচে যায়। তবে তিনি মুমূর্ষু অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এঘটনায় তাসফিয়া ভবনের দারোয়ান মোজাম্মেল হক শাহীন ও ফেনী পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা নূর আলম রাকিবের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জনকে আসামি করে বাবুর মা রেজিয়া বেগম ফেনী মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা ও শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সুদ্বীপ রায় বলেন, সোমবার শাহীনকে আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। গত সোমবার দুপুরে আদালত তার ১০ দিনের রিমান্ড চাইলে ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। রিমান্ড চলাকালে তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে। তার দেয়া তথ্যগুলো যাচাই বাছাই করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *