শেখ হাসিনা না থাকলে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ হতো না

ফেনী প্রতিনিধি, ৯ জানুুুয়ারী।।

বীর মুক্তিযোদ্ধা, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা না থাকলে আজকের সুখি-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ কোনোভাবেই সম্ভব হতো না। আল্লাহর রহমত আর বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্যেই তিনি এখনও বেঁচে আছেন, না হলে ১৫ আগস্ট কালো রাতে আমরা তাকেও হারাতে পারতাম।

’শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) দিনগত রাতে ফেনীর পরশুরাম উপজেলা পরিষদ চত্বরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ছালেহ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট ২০২০ এর ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এবং ফেনী জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান খায়রুল বাশার মজুমদার তপনের সংবর্ধনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ছালেহ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী ও হোসনে আরা চৌধুরী রাণী ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং পরশুরাম উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেন।

তিনি বলেন, ‘করোনাকালে সারা পৃথিবীর আর্থ-সামাজিক অবস্থা যেখানে কেঁপে উঠেছিলো, সেই সময়টাতেও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সক্ষমতার মধ্যদিয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে ছিল। শেখ হাসিনার কঠোর পরিশ্রম আর প্রজ্ঞায় দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের যুবকরা যাতে বিপথে না যায় সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। খেলা-ধুলাই পারে মাদক ও অন্যান্য অন্যায় কাজ থেকে যুবকদের দূরে রাখতে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ফেনী ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম বলেন, যুব সমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে খেলা হলো অন্যতম শক্তিশালী মাধ্যম।

ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, খালেদা জিয়ার সুযোগ ছিলো, তার এলাকা হিসেবে এ জেলায় হাজার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন করার। কিন্তু তা তিনি করেননি। অপরদিকে নিজের এলাকা না হলেও এ জেলায় হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন করেছেন শেখ হাসিনা। মহিপালে ৬ লেনের ফ্লাইওভার ও বঙ্গবন্ধু শিল্প পার্ক তার অন্যতম দৃষ্টান্ত।

অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফেনী জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান খায়রুল বাশার মজুমদার তপন।

পরশুরাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন মজুমদারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো. ইয়াছিন শরীফ মজুমদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুরুল আলম শাহীন, ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট হাফেজ আহম্মদ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম, ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম ফেয়ারুল ইসলাম, ছালেহ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী ও হোসনে আরা ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব জালাল উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেছবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল, ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল আলীম, পরশুরাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসমিন আক্তার, পরশুরাম পৌরসভা মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল, ফেনী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আমীর হোসেন বাহারসহ অনেকে।

এদিকে ফাইনাল খেলায় টিটিএল পরশুরাম ২-০ সেটে এফবিসি ফেনীতেকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। গত ১৭ ডিসেম্বর ফেনী জেলার ২৬টি দলের অংশ গ্রহনে টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন হয়। চ্যাম্পিয়ন দল কে প্রাইজমানি ৫০ হাজার টাকা ও ট্রফি এবং রানার্স আপ দলকে ৩০ হাজার টাকা ও ট্রফি দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *