শিরিন হত্যার প্রতিবাদ-বিক্ষোভে আবার উত্তাল ফেনী

নিজস্ব প্রতিনিধি, ২৪ ডিসেম্বর
ফেনীর রামপুরে গৃহবধূ মাহমুদা আক্তার শিরিন হত্যার প্রতিবাদে স্মারক জেলা প্রশাসক নিকট স্মারক লিপি প্রদান, বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধনে আবারো উত্তাল ফেনী । রাস্তায় নেমেছে স্বজনদের সাথে সর্বস্তরের মানুষ ।বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার থেকে দুপুর পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধনে সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ এমনটি প্রমাণ করে । এর আগে শিরিনের হতভাগা ফিতা মামলার বাদী অহিদুর রহমান তার মেয়ে শিরিন হত্যার বিচার দাবিতে ফেনী জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করে ।স্মারকলিপিতে তিনি উল্লেখ করেন আমার কন্যা মাহমুদা আক্তার শিরিন কে যৌতুকের দাবিতে নিষ্ঠুরভাবে হত্যার কারণে পাঁচ আসামিকে গত ১৮ ডিসেম্বর ফেনী মডেল থানায় মামলা করি। মামলার আসামীগণ পরস্পর যোগসাজশে গত ১৭ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার সময় নৃশংস ভাবে রামপুর পাটোয়ারীর বসতবাড়িটি সারা শরীর রক্তাক্ত জখম করে। আমার মেয়ে জামাই শাহজালাল শাহিন আমার মেয়েকে গলাটিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। আমি মামলা দায়ের করার পর হতে অধ্যবধি পর্যন্ত মূল আসামী গ্রেপ্তার হয়নি। উল্টো আসামিরা বিভিন্ন মাধ্যমে আমাকে মামলা প্রত্যাহারের জন্য চাপ সৃষ্টি করছে। আসামিদের হুমকিতে ভীতি প্রদর্শন বিভিন্ন কারণে আমার পরিবার চরম অনিশ্চয়তায় ভুগছেন। উল্লেখ্য যে গত ৭ ফেব্রুয়ারি আমার মেয়েকে উক্ত আসামি শাহ্জালাল শাহিনের নিকট বিবাহ দি। বিবাহের মাত্র ৮ মাসের মাথায় আমার মেয়েকে আসামি শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।
বিক্ষোভ সমাবেশ স্মারকলিপি ও মানববন্ধনের স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থন করে বক্তব্য রাখেন, শিরিনের বাবা অহিদুর রহমান শিরিনের জেঠাতো ভাই আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ শাহজাহান, ফেনী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নেতা ইসরাত জাহান দোলা, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা রবিন ও শিরিনের স্কুল জাফর ইমাম বীর বিক্রম উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকারা। এ সময় হঠাৎ চারদিক থেকে বিক্ষোভ মিছিল ও স্লোগানে মুখরিত হয়ে পড়ে ফেনী শহর। সবার এক দাবী শিরিন হত্যাকারী শাহজালাল শাহিনের ফাঁসি চাই। তা না হলে আন্দোলনে নামবে ছাত্র সমাজ।
গত বৃহস্পতিবার ১৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় শহরের মধ্যম রামপুর মানিক কমিশনার বাড়ি সংলগ্ন তনু পাটোয়ারী বাড়ীতে মাহমুদা আক্তার শিরিন (২৩) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। মাহমুদা দাগনভূঞার রাজাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রামচন্দ্রপুরের ছলু ভূঁঞা বাড়ির অহিদুর রহমান ও আলেয়া বেগমের মেজো মেয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *