শালীকে অপহরণ করে ধর্ষণ , দুলাভাই শ্রীঘরে

সোনাগাজী প্রতিনিধি

ফেনীর সোনাগাজীতে এক স্কুল ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে আবদুর রহিম নামে (৩৫) এক মুদি দোকানীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে। বুধবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ফেনী জেনারেল হাসপাতালে বুধবার দুপুরে ওই ছাত্রীর শারীরিক পরীক্ষা শেষে বিকালে ফেনী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরাফ উদ্দিনের আদালতে ২২ ধারা মোতাবেক জবানবন্দি প্রদান করেছে ওই ছাত্রী।

পুলিশ, ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, আমিরাবাদ ইউনিয়নের আহম্মদপুর গ্রামের জহির উদ্দিন মিঝি বাড়ির জসিম উদ্দিনের ছেলে আবদুর রহিম ৫-৬ বছর আগে একই ইউনিয়নের সফরপুর গ্রামের এক নারীকে বিয়ে করেন। তার একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। সে পেশায় একজন মুদি দোকানী। বিয়ের পর থেকে কয়েক বছর যাবৎ সংসারও সুখে কাটছিল। কিন্তু ১৬ বছর বয়সী তার শালী একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনির ছাত্রীর উপর তার কুনজর পড়ে। তাকে সে প্রতিনিয়ত বিয়ের প্রস্তাবে উত্ত্যক্ত করত। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার মা ও বোনকে জানালে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে দুলাভাই। গত ১৭ নভেম্বর সকাল ৭টার দিকে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় সফরপুর মোল্লা বাড়ির সামনে থেকে ওই ছাত্রীকে পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে থাকা দুলাভাই আবদুর রহিম ও তার ৩-৪জন সহযোগি জোরপূর্বক সিএনজি অটোরিক্সা যোগে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ছাত্রীর মা বাদি হয়ে আবদুর রহিমের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ৩-৪জনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের ডাকবাংলা এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে আবদুর রহিমকে গ্রেফতার এবং ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *