লেমুয়াতে সালিশে সংখ্যালঘু দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত-৬

নিজস্ব প্রতিনিধি, ২৭ ডিসেম্বর 

ফেনী সদর উপজেলা লেমুয়া ইউনিয়নে কসবা গ্রামে  সালিশ বৈঠকে সংখ্যালঘু দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তাদের উভয় পক্ষের ছয়জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ভুক্তভূগী পরিবার সূত্রে জানা যায়, কসবা গ্রামে করুণা কুমার শীল বাড়ির শুরেশ চন্দ্র শর্মার ছেলে রতন চন্দ্র শর্মার সাথে একই বাড়ির নারায়ণ চন্দ্র শীলের ছেলে রিপন চন্দ্র শর্মার বাড়ির পুকুর ও জায়গার সীমানা নিয়ে বিরোধ চলছে। পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী গতকাল শনিবার সকালে বাড়িতে সালিশদারগণ ও আমিন একত্রিত হয়। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে সালিশে বৈঠক চলাকালে রিপন চন্দ্র শর্মা, তার ভাই বাবুল চন্দ্র শর্মা ও সজল চন্দ্র শর্মার, বাবুল চন্দ্র শীলের ছেলে জুয়েল চন্দ্র শর্মা অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় সুজন চন্দ্র শর্মা, সুমি রাণী শীল, শুরেশ চন্দ্র শীল ও মাষ্টার সুণীল চন্দ্র পাল গুরুতর আহত হয়। তাদের শোক-চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এসে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় রতন চন্দ্র শর্মা বাদী হয়ে গতকাল শনিবার দুপুরে উল্লেখিতদের আসামী করে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

রতন চন্দ্র শর্মা জানান, আসামীরা তাকে মামলা করলে খুন করে লাশ গুম করার হুমকি দেয়। তিনি আসামীদের গ্রেফতারের জন্য জেলা পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ দাবী করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *