রিপন চেয়ারম্যানের বালু মহালে ৩ বার অভিযান, জব্দ ও জরিমানা

সোনাগাজী প্রতিনিধি, ১৪ ফেব্রুয়ারি

সোনাগাজীর  মুহুরী নদীতে অবস্থিত ফেনীর ফাজিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনের বালু মহালে এক বছরে তিন বার অভিযান চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। এমন তিনটি ঘটনায়  অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় সর্ব  মোট ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা , ১১ ড্রেজার মেশিন জব্দ করা হলেও থেমে নেই বালু উত্তোলন।

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন কারায় একটি ড্রেজার মেশিন জব্দ ও সাজেদুল ইসলাম নামে এক যুবকের দশ হাজার টাকা অর্থদন্ড (জরিমানা) করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। শুক্রবার (১১ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসেনের নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়।

ভ্রাম্যমান আদলতের বিচারক মো. জাকির হোসেন জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ  বেশ কয়েকটি ড্রেজার মেশিন দিয়ে মুহুরী নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মেশিনটি জব্দ করা হয় এবং এই কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে সাজদুল ইসলাম নামে এক যুবকের দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ড্রেজার মেশিন চালক মোহাম্মদ এয়াছিন জানান, ফেনী সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনের নিয়ন্ত্রণে ড্রেজার মেশিনগুলো দিয়ে বালি তোলা হচ্ছে।

ফাজিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপন বলেন, ড্রেজার মেশিনগুলো আমার , আমি বৈধ ভাবে লিজ নিয়ে বালু উত্তোলন করছি। এ্যাসিল্যান্ড মহোদয় ভুল করে ধরে ফেলছিল। অভিযানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে গত ২০২০ সালের ১৮ ডিসেম্বর  সোনাগাজীর মুহুরী নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনের বালু শ্রমিক কালাম ও রহিম নামে ২ জনকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। তখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাকির হোসেনই এই  দণ্ডাদেশ দেন। এছাড়া, ঘটনাস্থল থেকে আটক ২২ শ্রমিককে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে গত ২০২০ সালের (১৩ জানুয়ারি) একই জায়গায় অভিযান চালিয়ে দেড় লাখ টাকা জরিমানা ও ১০টি ড্রেজার ও পাম্প মেশিন জব্দ করা হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার রাজিব দাস পুরকায়স্থ ও সজল কুমার দাস সোনাগাজীতে নদী এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় মুহুরি বাঁধের তিন কিলোমিটার উত্তরে ৬টি অবৈধ ড্রেজার মেশিন জব্দ করা হয়। অভিযান টের পেয়ে জড়িতরা পালিয়ে যায়।

বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে রিপন চেয়ারম্যানের এই বালু মহালে   নৌকায় পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন করার সময় ৪টি পাম্প মেশিন জব্দ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব। অভিযানকালে জাহাঙ্গীর নামে একজন আটক করা হয়। পরে তাকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, এ ভাবে নিয়মিত ভালু উত্তোলন করায় হুমকীর মুখে পড়েছে সোনাগাজীর মুহুরী সেচ প্রকল্প।ভেঙ্গে যাচ্ছে সরকারী রাস্তাঘাট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *