মোবাইল কলে ঘোরে নাছিরের জীবিকার চাকা

সৌরভ পাটোয়ারী, ফেনী ৭ এপ্রিল ২০১৮
সেদ্ধ, আতপ ধান ও চাউল মাড়াইয়ের প্রথম পরিকল্পনা হয় নাছিরের সাথে ভোক্তাদের ফোনালাপে। সে যদি বলে তখন চাউল পানিতে ভেজানো হয় আর না হলে না। এর পর দর-দাম চুকিয়ে দেয়া হয় ।
এভাবে মোবাইল কলে ডাক পেয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান চাউল মাড়াইয়ের কাজে নিয়োজিত নাছির ।

নাছির হোসেন ফেনী সদর উপজেলার উত্তর কাশিমপুর গ্রামের অধিবাসী । নাছির জানায়, জীবনটা কোন মতে চলে যাচ্ছে , স্বপ্ন নেই, আশা নেই, এর থেকে বেশি কিছু চাওয়ারও নাই তার । এভাবেই ঘোরে তার জীবিকার চাকা। এক সময় মানুষ মাথা বোঝা নিয়ে দূরের পথ অতিক্রম করে  গ্রামের বাজারে গিয়ে ধান-চাউল মাড়াই করত । যাতায়াতে অনেক পরিশ্রম করতে হতো ।

কিন্তু নাছিরের কারণে মানুষ এখন ঘরে বসেই পাচ্ছেন ধান- চাউল মাড়াইয়ের সুবিধা । খেতে পারেন শীতের পিঠাসহ নানান রকমের সুস্বাধু পিঠা । এক কেজি চাঊল ( সেদ্ধ) গুড়া করতে ১০ টাকা, আতপ ৬ টাকা। এ ছাড়া সেদ্ধ ধান মাড়াই করতে প্রতি কেজি ২ টাকা ও আতপ ধান এক টাকা ৫০ পয়সা নেয় সে ।

তৈল খরচ, যাতায়াত ও দিন মুজুরী সব মিলিয়ে মুনাফা আর বেশি থাকে না । তারপরও গ্রাম , পাড়া প্রতিবেশীদের আন্তরিকতার কারণে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সমাজ সেবা নিয়োজিত নাছির । মোবাইলে ডাক পেয়ে নাছির ছুটে যায় গ্রামের মেঠো পথে পাওয়ার টিলার চালিয়ে ।

পাওয়ার টিলারে অতিরিক্ত ধান-চাউল মাড়াইয়ের মেশিন সংযোগ দিয়ে টেকনিক ব্যবহারের মাধ্যমে নাছিরের গাড়ি । আওয়াজ শুনতে খারাফ লাগলেও মানুষের চাহিদার কারণেই নাছিরের জীবিকার চাকা ঘোরে ।

তার ২ মেয়ে এক ছেলে । বড় মেয়ে এবার এসএসসি পরীক্ষা দিবে । বাকীরা ছোট । নাছির জানান, সৎভাবে জীবন চালানো কঠিন তবে মজা আছে সেখানেই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *