বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হলেন তপন

নিজস্ব প্রতিনিধি

ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত ও একক প্রার্থী খায়রুল বাশার মজুমদার তপনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন সোমবার বিকেলে নির্বাচনে তিনি একক প্রার্থী হওয়ায় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা তাঁকে বিজয়ী ঘোষণা করেন।

বিজয়ী ঘোষণাকালে সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম, পরশুরাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন মজুমদার, ফুলগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল আলিম, সোনাগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ চৌধুরী লিপটন, পরশুরাম পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেলসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ১০ নভেম্বর তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন। ১৭ নভেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই–বাছাইয়ের পর তাঁর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়।

 

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন পাটওয়ারী জানান, ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় খায়রুল বাশার মজুমদারকে একক প্রার্থী হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। এরপর গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবে।

গত ৭ সেপ্টেম্বর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজ আহম্মদ চৌধুরীর মৃত্যুতে চেয়ারম্যান পদটি শূন্য হয়। পরবর্তীতে জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ফয়েজুল কবিরকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা হয়। গত ২১ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ জেলা পরিষদ শাখার উপ-সচিব এ কে এম মিজানুর রহমানের সই এক প্রজ্ঞাপনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হবার পর খায়রুল বাশার মজুমদার তপন বলেন, এটি আমার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে অন্যতম প্রাপ্তি। এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতাসহ স্বাধীনতা যুদ্ধে সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *