বালিগাঁওতে মাটি চাপায় দুই শ্রমিক নিহত হওয়ার মামলায় ১৫দিনে আসামী গ্রেফতার হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ফেনী সদর উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়নের চর হকদি গ্রামে মাটি বহনকারী ট্রাক্টর চাপায় পিষ্ট হয়ে দুই শ্রমিক নিহত হওয়ার ১৫দিনেও কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি।মামলাটি ধামাচাপা দেওয়া চেষ্টা করছে মাটি কাটার সিন্ডিকেটেরা।

স্বজন ও এলাকাবাসী জানায় আসামীরা প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না। তাদের ধারণা পুলিশ ম্যানেজ হয়ে যাওয়ায় ঘাতক আসামীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না।

চর হকদি গ্রামে ছোট ফেনী নদীর খননের মাটি বিক্রি করছে উত্তর হকদি গ্রামের ছাত্রলীগ নেতা বেলাল, হেলাল, মহি উদ্দিনও সেলিমের সেন্ডিকেট। ১৮ এপ্রিল  সকালে মাটি কাটার সময় ট্রাক্টর চাপা পড়ে আবদুল আজিজ ও ইমাম হোসেন কানন পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়। তাৎক্ষনিক মাটি কাটার কাজে জড়িতরা লাশ রেখে  গাড়ী নিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ খবর পেয়ে  ঘটনাস্হল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। আবদুল আজিজ নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের বাসিন্দা। অপর নিহত ইমাম সুনামগঞ্জ জেলার মধ্যমনগর গ্রামের দ্বীন মোহাম্মদের ছেলে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, মাটি কাটার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বাহারকে ম্যানেজ করে তার কাছ থেকে লিখিত অনুমতি নিয়ে হকদির আবদুর রউফ ছেলে নুর আলম। পরে ছাত্রলীগ নেতা বেলাল তার লোকজন ও হেলাল, মহি উদ্দিন ও বিএনপি নেতা সেলিম গত কয়েক মাস দরে দেদারসে ট্রাক্টর করে ফসলী জমির মাটি ও নদী খননের মাটি বিক্রি করছে।গ্রামের রাস্তা ও সড়ক গুলো নষ্ট হয়ে গেছে।  চেয়ারম্যান বাহার কে স্থানীয়রা জানালে ও কোন প্রতিকার হয় না । বেলাল গংরা স্থানীয়দের হুমকি ধুমকি প্রদান করে।

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আনোয়ার হোসেন জানান গাড়ির চালক ও মাটির ঠিকাদার সেলিমসহ দুইজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *