ফেনী জিয়া মহিলা কলেজে হোস্টেল বানিজ্যের অভিযোগ

সংবাদদাতা:
ফেনী সরকারী জিয়া মহিলা কলেজে ছাত্রীদের নিয়ে চলছে হোস্টেল বানিজ্য। অতিরিক্ত ফি আদায়, নিম্ন মানের রুম সুবিধা, নিম্মাননের খাবার বিতরণ, ছাত্রীদের দিয়ে হোস্টেলে কাজ করানো, বহিরাগতদের হোস্টেলে খাওয়ানো,বিদ্যুৎ ব্যবহারে সীমাবদ্বতা ও ছাত্রীদের মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়কজন ছাত্রী অভিযোগ করেন , চলতি অক্টোবর মাসের ১৪ তারিখ হোস্টেলের জন্য ৬ হাজার টাকা জমা দিলেও তাদের গত জুলাই থেকে হিসাব গুনতে হবে।
অথচ তারা হোস্টেলে উঠবেন নভেম্বর থেকে। এছাড়া আরও কয়েকজন ছাত্রী অভিযোগ করেন অতিরিক্ত ফি আদায় করা হয়, নিন্ম মানের রুম সুবিধা, নিন্ম মানের খাবার বিতরন, ছাত্রীদের দিয়ে হোস্টেলে কাজ করানো হয়, বাজারে গিয়ে তাদের বাজার করতে হয়।
হোষ্টেলের বহিরাগত শিক্ষক, কর্মচারীরা হোস্টেলে ফ্রি খাওয়ানো হয়, বিদ্যুত ব্যবহার লাইট ও ফ্যান চালাতে সীমাবদ্বতা রাখা হয়, ছাত্রীরা তাদের কাপড় আয়রন ও হিটারের মাধ্যমে চা-কপি তৈরী করতে দেয়া হয়না ও ছাত্রীদের মানসিক নির্যাতনের অভিযোগও করেন।
এ ব্যাপারে কলেজ অধ্যক্ষ তাহমিনা বেগম বলেন, আমরা ফেনী জেলার অন্যান্য কলেজের সাথে মিলিয়ে ফি নির্ধারন করে থাকি। তবে বোর্ড বা মন্ত্রনালয় কতৃক নিদিষ্ট ফি নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *