ফেনী কারাগারে ১৭২ জনের স্থলে ৯০৮ বন্দি

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ
ফেনী জেলা কারাগারে ধারণ ক্ষমতা মাত্র ১শ ৭২জন। সেখানে বর্তমানে বন্দির সংখ্যা ৯শ ৮জন, যা ধারণ ক্ষমাতার পাঁচগুণ বেশী। প্রতিদিনই জেলার বিভিন্ন স্থানে চলছে নাশকতাসহ বিভিন্ন মামলার আসামীদের ধরপাকড়। এতে করে দিন দিন বাড়ছে বন্দির সংখ্যা। এছাড়াও অনেককে জামিনের পর জেল গেটে ফের আটক করা হয়েছে ফলে জামিন মিলছে না। ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত বন্দি থাকায় কারাগারে মানবেতর জীবন যাপন করছে বন্দিরা।

কারাগার সূত্র জানায়, ফেনী কারাগারে গতকাল রোববার পর্যন্ত ১৫জন নারীসহ ৯শ ৮জন বন্দি রয়েছে। এর মধ্যে হাজতি ৬শ ৪৭জন, দায়রা ১শ ৬২জন ও কয়েদি ৩৩জন। জেলার ৬ উপজেলায় নাশকতাসহ বিভিন্ন মামলার আসামী বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের ধরতে গত এক মাস ধরে পুলিশ ব্যাপক ধরপাকড় অভিযান চালাচ্ছে। প্রতিদিন জেলার কোন না এলাকা থেকে কমপক্ষে ১৫-২০জন করে গ্রেফতার করা হচ্ছে। এদেরকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হচ্ছে। অনেকে আদালত থেকে জামিন পেলেও পুনরায় জেলগেট থেকে আবার গ্রেফতার করছে। এতে করে কারাগারে বন্দির সংখ্যা দিন দিন বাড়লেও কমছেনা।

জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক জিয়া উদ্দিন মিষ্টার জানান একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরে গত ১ মাসে জেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক গাজী মানিকসহ ৭০জন নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। অনেকে জামিন লাভের পর ফের কারাফটকে আটক করা হয়েছে।

ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত বন্দি থাকায় বন্দিদের থাকা-খাওয়া, গোসল, পয়নিস্কাশনসহ নিত্য কাজে ভোগান্তি পোয়াতে হচ্ছে।
এদিকে গত ১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৩শ ৫০আসামী ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন কারাগার উদ্বোধন করলেও বন্দি স্থানান্তর করা হয়। ৩৯ কোটি টাকা ব্যয়ে কাজীরবাগ মৌজায় ৭ একর জায়গার মধ্যে ২৮টি ভবন নির্মাণ করা হয়।

ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও নির্মাণ কাজে ছোট খাটো বিভিন্ন ত্রুটি থাকার কারনে গণপূর্ত কর্তৃপক্ষ এখনো নবনির্মিত কারাগার কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেয়নি।

ফেনী জেলা কারাগারের জেলার শংকর কুমার জানান, ফেনী কারাগারে বর্তমানে বন্দি ৯শ ৮জন রয়েছে। আগামী মাসে নতুন কারাগারে বন্দী স্থানান্তর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে করে সংকট লাঘব হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *