ফেনীর ফাজিলপুরে অন্তঃস্বত্তা স্ত্রীকে বিদ্যুৎ শক্ দিয়ে হত্যা : স্বামীর স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি :
ফেনীর ফাজিলপুরে অন্ত:স্বত্ত¡ স্ত্রীকে বিদ্যুৎ শক্ দিয়ে হত্যা করে স্বাভাবিক মৃত্যুর নাটক সাজিয়েছিল বলে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে ঘাতক স্বামী। শনিবার বিকালে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ধ্রুব জ্যাতি পালের আদালতে ১৬৪ দ্বারা জবানবন্দি প্রদান করে।
আদালত সূত্রে জানা যায়, বৃহদাকার রাতে তাকে গ্রেফতারকরে। সিনিয়ন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ধ্রুব জ্যাতি পালের আদালতে মামলা কমকতা এসআই আবু তাহের আসামি ইয়াসিরকে হাজির করে দু’মাসের অন্ত:স্বত্ত¡ স্ত্রী শিরীনা আক্তার (২৬) কে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যা করেছ বলে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় ঘাতক স্বামী ইয়াছিন (২৩)।
এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের আবদুল গফুর কোম্পানী বাড়ীর আহছান উল্লাহর ছেলে মো. ইয়াছিনের সাথে একই ইউনিয়নের দক্ষিণ শিবপুর জাফর সরদার বাড়ীর মৃত মোস্তফার মেয়ে শিরীনা আক্তারের বিয়ে হয়।
শিরীনার ডানহাত পঙ্গু হওয়ায় বিয়ের পর থেকে শ্বশুর বাড়ীর লোকজন তার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায়। এ নিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে অশান্তি বিরাজ করছে।
৬ মার্চ সকাল ৯টার দিকে সে ফোনে শাশুড়ি ফিরোজা বেগম জানান, শিরীনা মারা গেছে। খবর পেয়ে শিরীনার মাসহ পরিবারের লোকজন ছুটে যায়।
স্বামীর ঘরে শিরীনার নিথর দেহ দেখে তারা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।
এজাহার সূত্রে আরো জানা যায়, শিরীনার দুহাতে কালো দাগ দেখে তারা হত্যার আলামত পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সুরতহাল রিপোর্ট নিয়ে লাশ ফেনী আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। পরে লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *