ফেনীতে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী

মহান বিজয় উপলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। আজ বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) বিকালে ফেনী জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ও বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশন ফেনী জেলা শাখার উদ্যোগে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। ফেনী জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজামান ফিতা কেটে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

 

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গোলাম জাকারিয়া, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সুজন চৌধুরী, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রজত বিশ্বাস, ,ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ওছমান হারুন মাহমুদ দুলাল, এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা ও ফেনী প্রেসক্লাবের  সভাপতি আবু তাহের ভূঞা, দৈনিক ফেনী’র সম্পাদক ও প্রকাশক আরিফুল আমীন রিজভী, এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোস্তফা কামাল বুলবুল । এসময় এসোয়িশনের উপদেষ্টা, সাধারণ সম্পাদকসহ সকল সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

 

উদ্বোধন শেষে প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন অতিথিরা। ফটো জার্নালিস্টের এমন ব্যতিক্রমী আয়োজনের প্রশংসা করে জেলা প্রশাসক বলেন, প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধের অনেক গুরুত্বপূর্ণ দলিল চমৎকারভাবে এখানে স্থান পেয়েছে। এর মাধ্যমে নতুন প্রজন্মসহ সকলকে জানতে পারছে স্বাধীনতা যুদ্ধে কার কি অবদান। এসময় স্বাধীনতা যুদ্ধে সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রশাসক ও দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান। এছাড়া এ আয়োজন করার জন্য ফটো জার্নালিস্টের সদস্যদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

 

প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিক উপস্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া মহান মুক্তিযুদ্ধে ফেনীর বিভিন্ন ইতিহাস ও ঐতিহ্যের বিভিন্ন বিষয় এতে তুলে ধরা হয়েছে। প্রদর্শনী দেখতে সকাল থেকে ভিড় করেন দর্শনার্থীরা।

এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তরুণ প্রজন্মের মাঝে স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাসের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। প্রদর্শনীর মাধ্যমে স্বাধীনতার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নতুন প্রজন্মের মাঝে পরিচয় করিয়ে দেবার পাশাপাশি দেশেপ্রেমের চেতনায় উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে এ উদ্যোগ নেই আমরা।

 

সাইফুর রহমান নামে একজন দর্শনার্থী প্রদর্শনী ঘুরে দেখছিলেন। সাথে ছিল তার ৬বছর বয়সী সন্তান। প্রদর্শনী দেখে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, এমন আয়োজন চমৎকার। তরুণ প্রজন্ম স্বাধীনতার ইতিহাস সম্পর্কে তেমন কিছু জানে না। আজ এখানে প্রদর্শিত আলোকচিত্রগুলো দেখে নিজেও অনেক কিছু জানতে পারলাম।

 

এর আগে মহান বিজয় দিবসের সকালে জেল রোডে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করে এসোয়িশনের সদস্যরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *