ফেনীতে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেলেন ১৫ অসহায় পরিবার

শহর প্রতিনিধি, জানুয়ারি ১৭ ২০২১

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে ফেনী সদর উপজেলার ১৫টি পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে। রবিবার ধর্মপুর ইউনিয়নের তালতলায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর হাত থেকে ঘরের চাবিগুলো বুঝে নেন নির্বাচিত পরিবারের সদস্যরা।

জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ড. মঞ্জুল আলম, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি.কম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরীন সুলতানা।

অনুষ্ঠানে ঘরের চাবিপ্রাপ্ত রহিমা আক্তার ও মোঃ হানিফ অভিব্যাক্তি প্রকাশকালে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআই) মো. আফতাবুল ইসলাম জানান, ‘আশ্রয়ণের অধিকার-শেখ হাসিনার উপহার’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ফেনী সদর উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য ১৫টি ঘর নির্মাণ করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বরাদ্ধকৃত আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ বাস্তবায়নের জন্য ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের তালতলা (বরইয়া টিলা) এলাকায় ৩৩ শতক খাস জায়গায় ১৫ পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণ করা হয়। আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা করে মোট ২৫ লাখ ৬৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ঘরগুলো নির্মাণ হয়।

নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা জানান, আধা পাকা দুই কক্ষের এ ঘরে ইটের দেয়াল ও উপরে রঙিন টিন, ব্যবহার করা হচ্ছে লোহার এঙ্গেল। এছাড়া প্রতিটি ঘরে স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশন ব্যবস্থা ও সাড়ে ৯ ফুট লম্বা খোলা বারান্দা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জোসনা আরা জুসি, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবদুল্লাহ আল মাহমুদ ভুইয়াসহ ফেনী সদর উপজেলায় কর্মরত সরকারী কর্মকর্তা ও বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যানরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিজাম হাজারী এমপি বলেন, বর্তমান সরকার অসহায় মানুষের সরকার। অসহায় ও দুস্থদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যা করেছেন তা অতীতে কোন সরকারের আমলে করা হয়নি। শেখ হাসিনার সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে অসহায়-দুস্থ মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পর্যায়ক্রমে সব দরিদ্র পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেয়া হবে বলে আশ্বাস দেন নিজাম হাজারী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *