ফেনীতে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের সরকারিভাবে জমি ও ঘর করে দেয়া হবে-জেলা প্রশাসক

নিজস্ব প্রতিনিধি, ১৮ নভেম্বর

ফেনীতে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের সরকারিভাবে জমি ও ঘর করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান। ফেনীর ধর্মপুরে তাদের পছন্দ অনুযায়ী থাকার জায়গা ব্যবস্থা ও কবরস্থানের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান তিনি।

আজ বুধবার (১৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টায় শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত ‘তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর জীবন মান, উন্নয়নে প্রয়োজন সবার অংশীদারিত্ব’ শিরোনামে মানুষ মানুষের জন্য নামক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই ঘোষণা দেন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের আয়োজনে জেলা প্রশাসন ও সামাজিক সংগঠন সহায়ের সহযোগিতায় সেমিনারটি অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি বলেন, তৃতীয় লিঙ্গ সম্প্রদায়ের মানুষদের দাবির প্রেক্ষিতে তাদের সরকারিভাবে জমি ও ঘর করে দেয়া হবে কিন্তু আপনাদের আচরণে যাতে মানুষ কষ্ট না পায় সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। আমি নিজে গিয়ে আপনাদের জায়গা দেখাব আপনারা পছন্দ করে নিবেন।

এসময় তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য কবরস্থানের জায়গার ও ব্যবস্থা করে দেবার ঘোষণা দেন জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসক বলেন, এই দেশ সকলের। প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে হিজড়া জনগোষ্ঠীকে ভোটাধিকার দিয়েছেন।

তৃতীয় লিঙ্গের কর্মসংস্থানের কথা উল্লেখ করে জেলা প্রশাসক বলেন, আপনাদের কাজ করে উপার্জন করতে হবে। কর্মসংস্থানের জন্য সেলাই মেশিন প্রদান করা হবে। সেলাই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে।

জেলা প্রশাসক বলেন, আপনারা কাজ করেন, আপনাদের পণ্যগুলো বাজারজাতকরণের দায়িত্ব আমাদের ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোছাঃ সুমনী আক্তার বলেন, আমরা সবাই মানুষ, আমাদের মধ্যে প্রথম ২য় ও ৩য় লিঙ্গ নেই।

অনুষ্ঠানের সভাপতি সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসাইন বলেন, আমরা যদি আমাদের মনমানসিকতা পরিবর্তন না করি তবে তৃতীয় লিঙ্গদের সুবিধা দিতে পারবনা। আমাদের দুই পক্ষেরই মানসিক পরিবর্তন দরকার।

এসময় তৃতীয় লিঙ্গের সব ধরণের চিকিৎসা ফেনীর সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি সকল প্রাইভেট হাসপাতাল ক্লিনিকে ব্যবস্থা থাকবে বলে জানান তিনি।

সহায়’র উপদেষ্টা বখতিয়ার মুন্নার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ফেনী সদর হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ রিপন নাথ, নারী উদ্যোক্তা মহিনুর জাহান লাবণী, কালের কন্ঠ জেলা প্রতিনিধি আসাদুজ্জামান দারা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন তৃতীয় লিঙ্গ সম্প্রদায়ের ফেনী জেলা সমন্বয়ক সুন্দরী হিজড়া। এছাড়া অনুষ্ঠানে লিপি, আশা, কবিতা, রুমি, মমতা হিজড়া বক্তব্য রাখেন। বক্তব্য প্রদানকালে তারা জেলা প্রশাসনের কাছে আবাসন ও কবরস্থানের সংকটসহ নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

ফেনী সিভিল সার্জন অফিসের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ শিপলু সরকারের উপস্থাপনায় তৃতীয় লিঙ্গের সম্প্রদায়ের মানুষদের নিয়ে ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হয়। সভা শেষে জেলা প্রশাসক উপস্থিত তৃতীয় লিঙ্গের প্রত্যেককে কম্বল উপহার দেন।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাগণ, সহায় এর প্রধান সমন্বয়ক মনজিলা আক্তার মিমি, সাধারণ সম্পাদক দুলাল তালুকদারসহ সংগঠনের সদস্য এবং তৃতীয় লিঙ্গ সম্প্রদায়ের ৫০জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *