ফেনীতে তিন সপ্তাহের মধ্যে করোনার ভ্যাকসিন মিলবে

নিজস্ব প্রতিনিধি, ২০ জানুয়ারী

ফেব্রুয়ারি মাসের ১ম সপ্তাহ থেকে ফেনীতে দেয়া হবে করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) ভ্যাকসিন। ১ম ধাপে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে করোনায় সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের।

সব ঠিক থাকলে আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে ফেনীতে মিলবে করোনার টিকা। এমন তথ্যই জানিয়েছেন ফেনী জেলার সিভিল সার্জন ও জেলা ভ্যাকসিন কমিটির সদস্য সচিব মীর মোশারফ হোসেন দিগন্ত।

তিনি জানান, কোভিড টিকা একেবারেই নতুন হওয়ায় প্রথমে এটি ঢাকা থেকে শুরু করা হবে। ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে ফেনীতে কোভিডের টিকা দেওয়া শুরু হবে বলে আশাবাদী।

প্রথম পর্যায়ে ৮০ বছরের উর্ধ্বে বয়স্ক লোকজন, মুক্তিযোদ্ধা এবং করোনায় ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধা চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, সংশ্লিষ্ট সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের লোকজন ও সংবাদ কর্মীরা টিকা পাবেন। দ্বিতীয় ধাপে পাবেন অন্যান্যরা।

সিভিল সার্জন জানান, স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি থাকায় ১৮ বছরের নিচে এবং গর্ভবতী নারীদের এই টিকা দেওয়া হবে না। টিকা নিতে আগ্রহীদের জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর উল্লেখ করে অনলাইনে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে এবং স্বেচ্ছায় টিকা নিতে ইচ্ছুক এমন সম্মতিপত্রে স্বাক্ষর করতে হবে।

উন্নত বিশ্বের কয়েকটি দেশে এরইমধ্যে কোভিডের ভ্যাকসিন সফলভাবে প্রয়োগ হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোভিডের টিকা নিয়ে ভয় ও উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

স্বাস্থ্য সহকারীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে টিকা দিয়ে থাকলেও অত্যধিক সতর্কতা থেকে আমরা শুরুতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে দেব না। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও জেলা সদর হাসপাতালে সিনিয়র স্টাফ নার্সদের দিয়ে এই টিকা দেওয়া হবে। এতে করে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসা দেওয়া যাবে।

এদিকে জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান কোভিড ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো ধরনের অপপ্রচার ও গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানান। কেউ গুজব ছড়ালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ার করে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *