পুলিশ কোয়ার্টারে আবাসিক এলাকায় ডেইরী-পোল্ট্রি খামার-দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

ফেনী প্রতিনিধি, ১৯ নভেম্বর

ফেনীর পুরাতন পুলিশ কোয়ার্টারে আবাসিক এলাকায় ডেইরী-পোল্ট্রি খামার বিষ্ঠার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। অভিযোগ রয়েছে ডেইরী ও পোল্ট্রি খামার গড়ে তুলেছেন এক নারী। খামার দুটির বিষ্ঠা ও ময়লা-আবর্জনার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন স্থানীয়রা। এ ব্যাপারে পৌরসভা সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ জানিয়েও কোনো ফল হয়নি। ফলে আশপাশের পরিবেশ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, জহুর হোসেন চৌধুরী সড়কের ৫তলা বিশিষ্ট ফেরদৌস ম্যানশনে। ভবনটির মালিক রাজধানীতে থাকায় এখানে তার ছোট বোন বকুল বেগম সপরিবারে বসবাস করেন। বেশ কয়েকবছর ধরে ভবনের পেছনে খালি জায়গায় দুটি গরু ও কয়েকটি ছাগল পালন করেন। পর্যায়ক্রমে এটি ডেইরী খামারে পরিনত করেন। খামারটিতে বর্তমানে ১২টি গরু ও ৮টি ছাগল রয়েছে। চলতি বছরের নভেম্বর মাস থেকে ছাদে চালু করা হয় পোল্ট্রি ফার্ম।

এলাকাবাসী জানান, বিষ্ঠার উৎকট দুর্গন্ধে এলাকার পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। ফেরদৌস ম্যানশনের চারদিকে মানুষের বসবাস করা দায় হয়ে পড়েছে। অথচ নীতিমালা অনুযায়ী একটি মুরগির খামার স্থাপনের জন্য পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতি ও প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে রেজিস্ট্রেশনভুক্ত হতে হবে। ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা এবং জনগণের ক্ষতি হয় এমন স্থানে খামার স্থাপন করা যাবে না।

এ ব্যাপারে ২০১৮ সালে ফেনী পৌরসভায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। স্থানীয়রা আরো জানান, পোল্ট্রি ও ডেইরী খামারের ফলে পাশ্ববর্তী ভাই ভাই ম্যানশন, মামনি ম্যানশন, রানী ম্যানশন, অনিন্দ্র প্রভা ও সুলতানা টাওয়ার সহ আশপাশের বাসা-বাড়িতে বসবাসের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। ভাই ভাই ম্যানশনের মালিক আবু বকর জানান, ডেইরী খামার সরিয়ে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও পর্যায়ক্রমে খামারের পরিসর বাড়ানো হয়। ইতিমধ্যে ভবনের চারতলায় পরিকল্পিতভাবে মুরগির খামার করা হয়েছে। ফলে চার তলায় রাখা মুরগীর দুর্গন্ধ বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে।

মা মনি ম্যানশনের পরিচালক মোফাচ্ছের হোসেন চৌধুরী মামুন জানান, দুই কোটি টাকা ব্যয়ে ভবনটি তার ভগ্নিপতি জসিম উদ্দিন তৈরি করেছেন। পাশে খামার থাকায় ভাড়াটিয়ারা কিছুদিন পরপরই বাসা ছেড়ে চলে যায়।

খামার মালিক বকুল বেগম এ প্রসঙ্গে জানান, তার স্বামী না থাকায় নিরুপায় হয়ে খামার তৈরি করেছেন। সেটির আয় দিয়ে জীবিকা নির্বাহ ও সন্তানদের পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন।

জহুর হোসেন চৌধুরী সড়ক পঞ্চায়েত কমিটির কোষাধ্যক্ষ হাজী নিজাম উদ্দিন জানান, কয়েকটি গরু পালনের কথা সবাই জানে। তবে ছাদে পোল্ট্রি খামার চালুর বিষয়ে অবগত নন।

ফেনী পৌরসভার স্থানীয় কাউন্সিলর আমির হোসেন বাহার জানান, খামারটির বিষয়ে এলাকার লোকজনের অভিযোগ পেয়েছেন। এটি সরিয়ে নিতে মালিকদের নির্দেশ দিয়েছেন।

পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: সাইদুর রহমান জানান, এ বিষয়ে কোন অভিযোগ তার কাছে কেউ দেয়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *