পরশুরাম ভোটের আগেই আ.লীগ মনোনীত-সমর্থিতরা

পরশুরাম প্রতিনিধি,

পরশুরাম পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপিসহ অন্য কোনও দলের ও স্বতন্ত্র কোনও প্রার্থী অংশ না নেওয়ায় পৌরমেয়রসহ ৯টি ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগের মনোনীত, সমর্থিত কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন পাটওয়ারী নির্বাচিত সবার হাতে উইনার স্লিপ তুলে দেন।

তিনি জানান, মেয়রসহ সবকটি ওয়ার্ডে একক প্রার্থী থাকায় তারা নির্বাচিত হয়ে গেলেন।

অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় মেয়র পদে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিন আগেও দুইবার মেয়র নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এছাড়াও ১ নম্বর ওয়ার্ডে আবদুল মান্নান লিটন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে খুরশিদ আলম, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আবু তাহের (বাঘা মেম্বার) ৪ নম্বর ওয়ার্ডে আবদুল মান্নান, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে এনামুল হক এনাম, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে কামাল উদ্দিন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুমন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে রাসুল আহাম্মেদ মজুমদার স্বপন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে আবু শাহাদাত চৌধুরী লিটন।

সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১,২,৩ নম্বর ওয়ার্ডে আফরোজা আক্তার ৪,৫,৬, নম্বর ওয়ার্ডে রাহেলা আক্তার ৭,৮,৯ ওয়ার্ডে হালিমা আক্তার একক প্রার্থী হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১৭ জানুয়ারি, বাচাই ১৯ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৬ জানুয়ারি নির্ধারিত ছিল। সব প্রক্রিয়া শেষে বুধবার প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করা হলো।

পরশুরাম উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটানিং অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে নির্বাচন কার্যালয়সহ নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃংখলা শান্তিপূর্ণ ছিল। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি এবং কোথাও কোনো ধরনের অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অবশ্য বিএনপি বলছে হামলা, ভয়-ভীতি প্রদর্শন করা হয়েছে তাদের, সে কারণে তারা নির্বাচন বয়কট করেছেন।

পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার পর মেয়র নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সাজেল বলেন, বিএনপি জেনে গেছে ভোটে এলে তাদের ভরাডুবি হবে, সে কারণে তারা ভোটে আসেনি। অন্য দলের লোকজনও মনে করছে পরশুরাম পৌরবাসীর উন্নয়নে নৌকা প্রকীকের বিকল্প নেই। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের দিকে লক্ষ্য করে আর কেউ এ পৌর সভায় আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র ও সমর্থিত কাউন্সিলরদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেননি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল বাশার মজুমদার তপন, পরশুরাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন মজুমদার, ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল করিম মজুমদার, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য জহিরুল ইসলাম চৌধুরী বাবু, পরশুরাম পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি শহিদুল্লাহ মজুমদার,বক্সমাহমুদ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাকির হোসেন চৌধুরী, মির্জা নগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ভুট্টো, চিথলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইয়াসিন শরীফ মজুমদার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *