পরশুরামে গরুর দড়িতে বেঁধে শিশুকে নির্যাতনের অভিযোগ, নির্যাতনকারীকে আটক করেও ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

ফেনী প্রতিনিধি, ২২ নভেম্বর ২০১৮

পরশুরামে ধান খাওয়ার অপরাধে আদনান নামের ৯ বছরের এক শিশুর হাত গরুর দড়িতে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় শিশুর হাতে দড়ি পেঁচানো অবস্থায় গরুকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। এতে টানা-হেচড় খেয়ে শিশুর শরীরের বিভিন্ন স্থানের চামড়া খসে যায়। বুধবার ( ২২ নভেম্বর) দুপুরে পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের ফকিরের খিল গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে।
এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে একই গ্রামের জমি মালিক আলমকে আদনানের আত্মীয়-স্বজনরা গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করলেও আজ বৃহস্পতিবার পুলিশ অভিযোক্তাকে ছেড়ে দিয়েছে বলে স্থানীদের অভিযোগ রয়েছে ।

মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মহি উদ্দিন ছুট্টু জানান, গরুর সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে গরুটি ছেড়ে দেয়, এতে গরুটি দ্রুত গতিতে দৌড়ে রাস্তা দিয়ে আদনানকে টেনে নিয়ে যায়, এসময় আদনানের শরীরের বিভিন্ন স্থানের চামড়া শরীর থেকে খসে যায়।
শিশু আদনানের চাচা মহি উদ্দিন ছুট্ট জানান ঘটনার সাথে আলম জড়িত না থাকায় দুপুরে পুলিশ আলমকে ছেড়ে দেয়।

পরশুরাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফেনীর তালাশকে জানান, গরুর দড়িতে শিশুটি অনিচ্ছাকৃত ভাবে পেচিয়ে যায়।
আলমের দোষ না থাকায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *