নবীনচন্দ্র সেনকে আমরা পুরোপুরি সম্মান জানাতে পারিনি-ফেনী জেলা প্রশাসক

নিজস্ব প্রতিনিধি>
নবীনচন্দ্র সেনকে আমরা পুরোপুরি সম্মান জানাতে পারিনি, তাই নতুন প্রজন্মকে তার সম্পর্কে জানাতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ফেনী জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজামান। কবির ১৭৩ তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। রোববার বিকেল ৫টায় শহরের রাজাঝি দীঘির পুর্ব পাশে নবীনচন্দ্র সেন লাইব্রেরীতে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রথমবারের মতো পালিত হলো কবি, প্রশাসক ও আধুনিক ফেনীর রূপকার নবীনচন্দ্র সেনের জন্মদিন। তিনি আরো বলেন ফেনী একটি অগ্রসরমান জেলা। এর ভিত্তি তৈরী করেছেন কবি ও তৎকালীন মহকুমা প্রশাসক নবীনচন্দ্র সেন। নবীনচন্দ্র সেন নোয়াখালীর এসডিও ছিলেন। পরে ফেনীর এসডিও হিসেবে এসে ফেনীকে এমনই ভালোবেসেছেন যে, এতোদিন পরও আমেরা তাকে স্মরণ করতে বাধ্য হচ্ছি। নবীন সেনের বিশেষত্ব হলো সরকারী কঠিন দায়িত্ব পালনের পরও তিনি সাহিত্য সৃষ্টি করে অমর হয়ে আছেন। আমি আশা করবো তার নামের এ লাইব্রেরীটি জ্ঞানের আলো জ্বালাবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক( সার্বিক) সুজন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফেনী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ বিমল কান্তি পাল ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জেবুন নেছা শিউলী। অনুষ্ঠানে কবি নবীন চন্দ্র সেনের জীবনী বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ফেনীর সরকারী কলেজের উদ্ভিদ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোশারফ হোসেন।
এরপর আধুনিক ফেনীর রূপকার নবীনচন্দ্র সেনের উপর বক্তব্য রাখেন ফেনীর সরকারী গণ গ্রন্থাগারের লাইব্রেরীয়ান কামরুল হাসান, এ্যাড. সমির কর, দৈনিক সংবাদের ফেনী প্রতিনিধি কবি শাবিহ মাহমুদ, তাহসিন সোবহান ও পঙ্কজ সূর্য্য প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *