দাগনভূঞায় শিশু ছাবিদের রহস্যজনক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধি,
ফেনীর দাগনভূঞা পৌর শহরের রামানন্দপুর গ্রামের আসলাম ব্যাপারী বাড়ীর মিজানুর রহমানের ঘর থেকে মঙ্গলবার রাতে মো. ছাবিদ (৩) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের স্বজনদের দাবী এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড।
পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিজয়পুর গ্রামের আবদুল হকের ছেলে আবু ছায়েদ কে তালাক দিয়ে দুই ছেলে নিয়ে রামানন্দপুর গ্রামের মিজানুর রহমানের মেয়ে বৃষ্টি একই এলাকার মো. ইউছুপ রিয়াদের সঙ্গে বিয়ে হয়। দুই ছেলে ও নিহতের সৎ বাবাকে নিয়ে দাগনভূঞার পৌর শহরের ইয়ারপুর গ্রামের মোল্লা বাড়ীতে ভাড়া বাসায় বসবাস করত। ওইদিন রাতে ছাবিদ কে নিয়ে বাসা থেকে ঘুরতে বের হয় সৎ বাবা। এরপর ছেলে মোটর সাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লেগে আহত হয়েছে মর্মে দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য্ কমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার অবনতি ঘটায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পথিমধ্যে মারা যায় ছাবিদ। লাশ তড়িগড়ি নানার বাড়ীতে দাফনের চেষ্টা করে। এলাকাবাসী বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরদিন সকালে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
নিহতের দাদা আবদুল হক জানান, তার নাতীকে পরিকল্পিতভাবে বৃষ্টি ও তার দ্বিতীয় স্বামী ইউছুপ হত্যা করে সড়ক দুর্ঘটনার নাটক সাজিয়েছে। তিনি নাতীর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন।
দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন নিহতের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,  ঘটনাটি  দুর্ঘটনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *