দাগনভূঁঞায় স্ত্রীর যৌতুক মামলায় স্বামীর দুই বছর কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিনিধি,

ফেনীতে শ্বশুরের দায়ের করা যৌতুক মামলায় জামাই মো. মোজাম্মেল হোসেন মানিককে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মামলা দায়েরের তিন মাসের মধ্যেই রায় ঘোষণা দেওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ বিউটি আক্তার।

 

 

বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) ফেনীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইনের আদালতে এ রায় ঘোষণা করা হয়।

 

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী সৈয়দ আবুল হোসেন জানান, চলতি বছরের ২৭ এপ্রিল দাগনভূঁঞা উপজেলার উত্তর কোরবানপুর গ্রামের শাহ জালালের মেয়ে বিউটি আক্তারকে বিয়ে করেন একই উপজেলার লতিফপুর গ্রামের মধু মিয়ার ছেলে মো. মোজাম্মেল হোসেন মানিক।

 

 

বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য বিউটি আক্তারকে নির্যাতন করা আসছে মানিকের পরিবার।

২৮ আগস্ট  ৮ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য বিউটি আক্তারকে ঘরে আটকে রাখে মারধর করে স্বামী ও তার পরিবার।

 

 

খবর পেয়ে বিউটির বাবা শাহ জালাল মামলা করে মেয়েকে উদ্ধার করেন। পরে তিনি যৌতুক আইনে ২৭ সেপ্টেম্বর একটি মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলায় ৪ জনের স্বাক্ষী শেষে বৃহস্পতিবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইনের আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে বিউটি আক্তারের স্বামী মানিকের ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ১০ হাজার টাকার অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

 

আদালতের বেঞ্চ সহকারী জাকির হোসেন জানান, আসামি মানিক আপস-মীমাংসার শর্তে জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *