ছাগলনাইয়ায় ৩ দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সহোদরের না বলা কথা

দুলাল তালুকদার>>

ছাগলনাইয়া উপজেলার ৯নং শুভপুর ইউনিয়নের উত্তর মন্দিয়া গ্রামের মৃত মোঃ মোস্তফার তিন ছেলে সাইফুল ইসলাম(৩৫), শহীদুল ইসলাম (৩২)ও মোমিনুল ইসলাম(২৮) জন্ম থেকেই অন্ধ তারা। দিন সহোদর জানান  জন্ম থেকে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হলেও মানুষের কাছে হাত না পেতে চেষ্টা করছি নিজের পায়ে দাঁড়াতে। সরকারী বেসরকারী কোন সংস্থা বা স্বহৃদয়বান ব্যাক্তি যদি আমাদের বিনা সুদে কিছু টাকা ঋণ হিসেবে দেয় তাহলে আমরা কাজ করে স্বাবলম্বী হতে চাই।

তিন সহোদরের জননী ছকিনা বেগম জানান, সাইফুলের স্ত্রী রেজিয়া বেগম, শহীদুল ইসলামের স্ত্রী ফারজানা বেগমকে নিয়ে ছয় সদস্যের সংসার তাদের তিন ভাইকে চালাতে হয়। অনেক বছর আগে তার স্বামী মোঃ মোস্তফা মারা যান। তিন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশু পুত্রকে নিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু নিজ সন্তানদের কোন অসম্মানজনক পেশায় দেয়ার কথা চিন্তাও করেননি তিনি। ভাইদের দেয়া অল্প অর্থ সাহায্যে ও নিজের তৈরী করা ডালা, কুলা, চাঁইসহ গৃহস্থালী জিনিস বিক্রি করে এক-আধপেটা করে নিজের সন্তানদের বড় করতে থাকেন তিনি। কিন্তু এক পর্যায়ে সংসারের ছয়জন সদস্যের ভরণপোষণ তার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছিলনা। বড় ছেলে সাইফুলের বয়স যখন ১৩বছর, মায়ের দেয়া সামান্য পুঁজিতে গ্রামের বাড়ী বাড়ী গিয়ে চকলেট, চুইংগাম, আচার বিস্কিট ইত্যাদি বিক্রি করা শুরু করেন। আস্তে আস্তে বাকী দুই প্রতিবন্ধী ভাই শহীদ ও মোমিনকে তার এই ক্ষুদ্র ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত করেন। তিন ভাইয়ের সামান্য সঞ্চয় ও মায়ের ডালাকুলা বিক্রি করা কিছু আয় দিয়ে এবং ছাগলনাইয়া উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে ৪০হাজার টাকা নিয়ে তারা বাড়ীর সামনে একটি কনফেক্শনারী দোকান চালূ করেছিল। এ দোকান করে প্রতি মাসে সংসার চালানোর পর কিস্তির টাকা দেয়া কষ্টকর হয়ে পড়ে। এখন সেই দোকানটিও বন্ধ।পুঁজির অভাবে দোকানটি চালাতে পারছেনা তারা।

দিন সহোদর জানান  জন্ম থেকে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হলেও মানুষের কাছে হাত না পেতে চেষ্টা করছি নিজের পায়ে দাঁড়াতে। সরকারী বেসরকারী কোন সংস্থা বা স্বহৃদয়বান ব্যাক্তি যদি আমাদের বিনা সুদে কিছু টাকা ঋণ হিসেবে দেয় তাহলে আমরা কাজ করে স্বাবলম্বী হতে চাই।তাদেরকে সহযোগিতার জন্য যোগাযোগ করতে পারেন  01816284613 এই নাম্বারে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী  শহীদুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *