ছাগলনাইয়ায় রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে ভাবী নির্যাতন-অন্যত্র গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে অসহায় বড় ভাই

নিজস্ব প্রতিনিধি, ১৯ অক্টোবর
ছোট তিন ভাই ও তাদের সন্তানদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে দীর্ঘ দেড় বছর বাড়ি-ঘর ছেড়ে অন্যত্র গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে বড় ভাই মো: রবিউল হক (৭০) ও তার পরিবারের সদস্যরা। ঘটনাটি ঘটেছে ছাগলনাইয়া উপজেলার পাঠাননগর ইউনিয়নের দিক্ষণ হরিপুর গ্রামের আজিম পাটোয়ারী বাড়িতে।
মো: রবিউল হক জানান, তার পিতা সিদ্দিকুর রহমান মৃত্যুকালে তাদের ৫ভাই ও ২ বোনকে রেখে যান। পিতার মৃত্যুর পর সবই ঠিকভাবে চলছিল। হঠাৎ রবিউল হকের বিরুদ্ধে ক্ষেপে উঠে তার তিন ভাই রুহুল আমিন, নুরুল আমিন, নুরুল করিম ও তাদের সন্তানরা। ষড়যন্ত্র শুরু করে তাকে সকল সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার জন্য। কখনো ঘরের সামনে বেড়া দিয়ে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়। কখনো চলাচলের রাস্তা কেটে ফেলে, কখনো মারধর করে, আবার কখনো হত্যার হুমকি প্রদান করে। এভাবে ধারাবাহিকভাবে নির্মম অত্যাচার-নির্যাতন সইতে না পেরে দীর্ঘ দেড় বছর যাবত রবিউল হক নিজের বসত বাড়ি ছেড়ে জীবন বাঁচাতে একই গ্রামের বজল মৌলভী সাহেবের বাড়িতে ভাড়া বাসায় বসবাস করছেন। ৮অক্টোবর সকাল ১০টায় রবিউল হকের স্ত্রী ফিরোজা বেগম (৫৫) নিজ বাড়িতে গেলে রুহুল আমিন, নুরুল আমিন, নুরুল করিম ও তাদের পরিবারের সদস্যরা তাকে অতর্কিতভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় ফিরোজা বেগমকে উদ্ধার করে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে ১১অক্টোবর রবিউল হক বাদী হয়ে ছাগলনাইয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো: মনির হোসেন জানান, মামলা হওয়ার পর সকল অসামীরা আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। আদালত ৬নং আসামী রায়না আক্তারকে (৩৫) জেল হাজতে পাঠান এবং বাকী আসামীদের জামিন মঞ্জুর করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *