গয়না-লেপ-তোষক নিয়ে কনের বাড়িতে হাজির ফেনীর পুলিশ সুপার

নিজস্ব প্রতিনিধি,

গতকাল বুধবার জনগনের দানে সংগ্রহীত ৪০ হাজার টাকা নিয়ে মেয়ের বিয়ের কেনাকাটার জন্য মধ্যম চরচান্দিয়া থেকে সোনাগাজী বাজারে এসেছিল দরিদ্র রিক্সাচালক আবুল কালাম। পরের দিন আজ বৃহস্পতিবার ছিল তার মেয়ে বিবি জাহেদার বিবাহের দিনক্ষণ।কিন্তু বিধিবাম!স্বর্ণের চেইন কিনে বাড়ী ফেরার পথে কৌশলে তিন যুবক সর্বস্ব লুটে নেয় তার।

এ ঘটনার পর থেকে অঝোরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছিল আবুল কালামের পরিবার।দুর্বীত্তরা মেয়ের বিয়ের জন্য কেনা গয়না নিয়েগেল, তাহলে পরের দিন কিভাবে বিয়ে হবে?

বিভিন্ন  গনমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসহায় আবুল কালামের এই করুন কাহিনী দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি ফেনীর মানবিক পুলিশ সুপার এস এম এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারের(Jahangir Sarker) নজরে পড়ে।তিনি বুধবার রাতেই অসহায় আবুল কালামের পরিবারের পাশে দাড়ানোর ঘোষনা দেন।তিনি পূর্ব ঘোষিত দিনে মেয়েটির বিয়ে এবং সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সুপার মেয়েটির জন্য স্বর্ণের গয়না, লেপ-তোষকসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিয়ে সোনাগাজী উপজেলার চর চান্দিয়া ইউনিয়নের মধ্য চরচান্দিয়া গ্রামে কনের পিত্র্রালয়ে গিয়ে হাজির হন।তার উপস্থিতিতে বিয়ের কাজ সম্পর্ণ হয়। এসময় পুলিশের কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *