গীতা স্কুল প্রতিষ্ঠা ও কমিটি গঠন কার্যক্রম শুরু

সংবাদদাতা
সারাদেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে গীতা শিক্ষার প্রসার ঘটানোর লক্ষ্যে ‘গীতা স্কুল’ প্রতিষ্ঠায় কাজ করছে শারদাঞ্জলি ফোরাম। তারই ধারাবাহিকতায় শারদাঞ্জলি ফোরাম ফেনী জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ জেলার বিভিন্ন উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ‘গীতা স্কুল’ প্রতিষ্ঠা ও উপজেলা কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশা ও ধর্মপ্রাণ ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় করে আসছেন।
গত ৫ ফেব্রæয়ারি পরশুরামে, ১২ ফেব্র“য়ারি ফুলগাজীতে ও ২৬ ফেব্রæয়ারি সোনগাজী ও দাগনভূঞায় মতবিনিময় অনুষ্ঠিত করেন তারা। ২৬ ফেব্রæয়ারি শুক্রবার দিনব্যাপী সোনাগাজীর চান্দলা কালী মন্দির, মান্দারী শ্রীশ্রী রাধাকৃষ্ণ সেবাশ্রম, কুঠির কালীবাড়ি, আড়কাইম সূত্রধর বাড়ী, সোনাগাজী পৌর এলাকা ছাড়াইতকান্দি সার্বজনীন শ্রীশ্রী গিরিধারী আশ্রমে মতবিনিময় করেন শাদাঞ্জলি ফোরামের নেতৃবৃন্দ। এ সময় শারদাঞ্জলি ফোরাম ফেনী জেলা শাখার সভাপতি শুভরাজ বণিক, উপদেষ্টা টুটুল দাস, সাহিত্য সম্পাদক যামিনী নাথ টিপু, কোষাধ্যক্ষ বাবুল নাথ, প্রচার সম্পাদক সাধন নাথ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সন্ধ্যায় দাগনভূঞায় আতাতুর্ক স্কুল মাঠে মতবিনিময় সভায় যুক্ত হন শারদাঞ্জলি ফোরাম ফেনী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রবীর শীল। এ সময় দাগনভূঞা উপজেলার চন্দন দাস, নিমাই দাস ও পলাশ চন্দ্র দাস সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সংগঠনের সভাপতি শুভরাজ বণিক জানান, সনাতন ধর্মাবলম্ভীদের ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত করতে ফেনী জেলার অন্তত ১’শ গীতা স্কুল করা হবে। বেশ কয়েকটি নতুন গীতা স্কুলের প্রস্তাব আমাদের কাছে এসে পৌঁছেছে, আশা করছি স্বল্পসময়ের ব্যবধানে গীতাস্কুলগুলোর কার্যক্রম এগিয়ে নিবো। এ গীতা স্কুল প্রতিষ্ঠায় সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও আগামী এক মাসের মধ্যে সকল উপজেলা কমিটি গঠন প্রক্রিয়ার কাজ সমাপ্ত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *