কলা গাছের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা, ৪৯ বছরেও নির্মাণ হয়নি শহীদ মিনার

সোনাগাজী সংবাদদাতা,
সোনাগাজীর নবাবপুর ইউনিয়নের মধ্যম সুলতানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ২১ ফেব্রুয়ারি ভোরে নিজেদের তৈরি শহীদ মিনারের বেদীতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন স্কুলের ক্ষুদে শিক্ষার্থী ও সুলতানপুর ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির সদস্যরা। এর আগে শনিবার দিনভর ওই বিদ্যালয়ের মাঠে সুলতানপুর ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির সদস্য ও ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা মিলে তৈরি করে কলাগাছের শহীদ মিনার।
বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রত্যন্ত এ অঞ্চলে ১৯৭২ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। এদিকে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার ৪৯ বছরেও নির্মাণ করা হয়নি শহীদ মিনার।
দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে কলা গাছ দিয়ে শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোক্তা মধ্যম সুলতানপুর ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির অন্যতম সদস্য শেখ ফজলে রহমান সোয়াদ জানায়, বিদ্যালয়ে কোন শহীদ মিনার নেই বলে তারা জাতীয় দিবসগুলোতে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পারে না। এজন্য নিজেরাই বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে কলা গাছে কাগজ মুড়িয়ে প্রতীকী শহীদ মিনার তৈরি করেছে।
মধ্যম সুলতানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেনীর শিক্ষার্থী সায়মা আক্তার জানান, তাদের বিদ্যালয়ে যেহেতু শহীদ মিনার নেই। তাই তারা এলাকার বড় ভাইদের সাথে কয়েকজন শিক্ষার্থী মিলে কলা গাছের এ শহীদ মিনার বানিয়েছে।
মধ্যম সুলতানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এসএমসির সভাপতি শেখ মোঃ একরামুল হক কিশোর বলেন, শহীদ মিনার মূলত একটা প্রতীক মাত্র। তাই ইটের হোক আর কলা গাছেরই হোক, শ্রদ্ধা নিবেদনটাই মূখ্য। এটা করতে পেরে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা অনেক তৃপ্ত হয়েছে বলে আমরা লক্ষ্য করেছি।
সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন বলেন, মধ্যম সুলতানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এছাড়া সোনাগাজী উপজেলায় যেসব বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নেই সেগুলোতে শহীদ মিনার নির্মাণের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *