এক ঘণ্টার ফেনী উপজেলা চেয়ারম্যান ইমার ঘোষনা…

নিজস্ব প্রতিনিধি, ২৯ অক্টোবর

নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে, নারীবান্ধব উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে এবং নারীর উন্নয়নে কাজ করতে এক ঘণ্টার জন্য ফেনী সদর উপজেলা পরিষদের প্রতীকী চেয়ারম্যান হয়েছে মাহবুবা তাবাসুম ইমা নামের দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী।

 

বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ফেনী সদর উপজেলা পরিষদের কার্যালয় এক ঘণ্টার জন্য প্রতীকী উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে ওই ছাত্রী চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি.কমের কাছ থেকে দায়িত্ব বুঝে নেয়। এসময় তার অধিন হন পুরো সদর উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

 

এনসিটিএফ ফেনী জেলা সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মুরাদ জানায়, কন্যাশিশু দিবস উপলক্ষে নারীর ক্ষমতায়নের জন্য বেসরকারি সংস্থা প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল ও ন্যাশনাল চিল্ড্রেন ট্রান্সফোর্সের (এনসিটিএফ) উদ্যোগে উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভাকে নারীবান্ধব করতে ও নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে প্রতীকী উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে সুপারিশমালা তুলে ধরে মাহবুবা তাবাসুম ইমা। একইসঙ্গে এক ঘণ্টায় উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন কাজ করার পাশাপাশি তদারকিও করে সে।

 

এক ঘন্টার জন্য দায়িত্ব বুঝে নিয়ে ইমা জানায়, ৯২৮ বর্গ কিলোমিটারে ফেনী জেলাকে বাল্য বিয়ে মুক্ত করা হবে। উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ে প্রবেশের পথকে ইভটিজিং মুক্ত করা হবে। স্কুল গুলোর সামনে থাকা ইভটিজারদেরকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

 

মাহবুবা তাবাসুম ইমা সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমি এখন প্রতিকি উপজেলা চেয়ারম্যান হয়েছি। আগামীতে আমি দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে চাই। প্রধানমন্ত্রী হয়ে দেশ সেবা করবো। দেশকে ধর্ষক মুক্ত করবো।

 

ইমা রাজধানীর উত্তরা হাইস্কুল এন্ড কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। সে ন্যাশনাল চাইল্ড পার্লামেন্টের কো-চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পারন করছে। এছাড়া সে ন্যাশনাল চিল্ড্রেন ট্রান্সফোর্স (এনসিটিএফ) জেলা শাখার সাবেক শিশু গবেষক।

 

অনুষ্ঠানে প্রতীকী উপজেলা চেয়ারম্যানের সঙ্গে বাল্যবিয়ে, নারী নির্যাতনসহ নারী প্রতি সব ধরনের সহিংসতা রোধে আলোচনা করা হয়। এসময় প্রতীকী চেয়ারম্যানের দেওয়া বিভিন্ন সুপারিশ আমলে নেওয়ার আশ্বাস দেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি.কম। তিনি ইমার উজ্জ্বল ভবিষ্যত কামনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *